বৃহস্পতিবার , ১৩ মে ২০২১
সর্বশেষ সংবাদ

দেশের বীমা খাতে বছরে ১৫-১৬ হাজার কোটি টাকা প্রিমিয়াম আয়ের সম্ভাবনা। ৩০ এপ্রিল ২০২১

পপুলেশন ডেস্ক: দেশে বীমার আওতায় রয়েছে মাত্র ৩৫ থেকে ৪০ শতাংশ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান। বর্তমানে এখাতে প্রিমিয়াম সংগ্রহ হয় চার থেকে সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা। সরকার বীমা খাতে বিশেষ নজর দিলে বীমা কোম্পানিগুলো বছরে ১৫ থেকে ১৬ হাজার কোটি টাকা প্রিমিয়াম সংগ্রহ করতে পারবে। এতে সরকারও বড় রাজস্ব পাবে।

বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) মেঘনা ইনস্যুরেন্স কোম্পানি আয়োজিত বীমা খাতের সাংবাদিকদের জন্য আয়োজিত কর্মশালায় (ভার্চুয়াল) প্রধান আলোচক হিসেবে কোম্পানির মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক এসব কথা জানান

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইনস্যুরেন্স রিপোর্টার্স ফোরামের (আইআরএফ) সভাপতি গোলাম মওলা। সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত সুমনের সঞ্চালনায় মেঘনা ইনস্যুরেন্স কোম্পানির ডিএমডি মো. হাফিজুর রহমান, সহ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ মনির হোসেন ও মো. কবির আহমেদ, ঊর্ধ্বতন মহাব্যবস্থাপক মো. আলমগীর হোসেন দেওয়ান ও মো. গোলাম আল মামুন, উপ-মহাব্যবস্থাপক আবু নাসের মিয়াজী এবং সহ-মহাব্যবস্থাপক মো. আব্দুস সামাদসহ আইআরএফ-এর সদস্যরা অংশ নেন।

আবু বকর সিদ্দিক বলেন, বর্তমানে দেশে ব্যাংকের সংখ্যা ৬০টি। আর লাইফ ও নন-লাইফ কোম্পানির সংখ্যা ৮০টি। এটি মনিটরিংয়ের জন্য ছোট একটি নিয়ন্ত্রণ সংস্থা আছে (আইডিআরএ)। নিয়ন্ত্রণ সংস্থা যত বেশি সক্রিয় হবে ততবেশি বীমা কোম্পানিগুলো লাভবান হবে। কিন্তু দুঃখের বিষয় বীমা খাতের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা নিজেই জনবল সংকটে রয়েছে। অধিকাংশ কর্মকর্তাই চুক্তিভিক্তিক। তাদের অনেকেরই বীমা খাতের বিষয়ে ধারণা নেই।

তিনি বলেন, ব্যাংক সরল অঙ্কে চলে, কিন্তু বীমা সরল অঙ্কে চলে না উল্লেখ্য করে, এ খাতকে এগিয়ে নিতে সরকারকে দ্রুত এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানান এ নির্বাহী কর্মকর্তা।

মেঘনা ইনস্যুরেন্সের সিইও বলেন, বাধ্যবাধকতা ছাড়া কেউ নন-লাইফ বীমার আওতায় আসতে চায় না। শিল্প-কারখানাসহ বড় বড় মার্কেটে বীমা করা নেই। তাদের সম্পদের অবশ্যই বীমা করা উচিত বলে জানান তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে আবু বকর সিদ্দিক বলেন, বীমা দাবি আদায়ে ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিষ্ঠান সার্ভে প্রতিষ্ঠানের বিষয়ে আইডিআরএ-তে আপিল করতে পারে।

বীমা খাতে আস্থা সংকট অনেক কমেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আস্থা সংকট এক সময় ছিল। কিন্তু বর্তমানে আস্থা সংকট তেমন নেই। কোম্পানিগুলো নিয়মিত বীমা দাবি পরিশোধ করছে। একসময় বীমার ওপর শিক্ষা ও দক্ষতার অভাব ছিল কিন্তু এখন এমনটা নেই।

About admin

Check Also

৬ কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ। ১১ মে ২০২১

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ছয় কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৬ কোম্পানির গত বছরের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Skip to toolbar